‘আজাদি’ মিলবে না বলে ব্রিটিশরাও ভারতের জন্য একই কথা বলেছিল: হুররিয়াত

২৯

ভারতীয় সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াতের কাশ্মিরের ‘আজাদি’ সম্পর্কে মন্তব্যের পাল্টা জবাবে হুররিয়াতের পক্ষ থেকে ব্রিটিশরাও ভারতের জন্য একই কথা বলেছিল বলে মন্তব্য করা হয়েছে।

কাশ্মিরে আজাদির দাবিতে আন্দোলনকারীদের উদ্দেশ্যে  উদ্দেশ্যে কড়া বার্তা দিয়ে জেনারেল রাওয়াত এর আগে বলেছিলেন, তাদের আজাদির স্বপ্ন কোনোদিনই পূরণ হবে না। কাশ্মিরের আজাদি অসম্ভব বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

জেনারেল রাওয়াত বলেন, আমি শুধু লোকদের এটা বলতে চাই যে, আপনারা সেনাবাহিনীর সঙ্গে লড়তে পারবেন না। সেনাবাহিনীর সঙ্গে লড়াই করে আপনারা কখনো জয়ী হতে পারবেন না।’

ভারতীয় সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত

এবার হুররিয়াত কনফারেন্সের একাংশের প্রধান মীরওয়াইজ ওমর ফারুক জেনারেল রাওয়াতের পাল্টা জবাবে ভারতকে কার্যত ব্রিটিশদের সঙ্গে তুলনা করেছেন। তিনি বলেন, ব্রিটিশরাও একসময় ভারতের আজাদি সম্পর্কে ওই কথাই বলেছিল। কিন্তু অবশেষে তাদেরকে আজাদি দিতেই হয়েছে।

মীরওয়াইজ বলেন, অখণ্ড ভারতে ১০০ বছরেরও বেশি সময় ধরে শাসন করে, হাজারো ভারতীয়কে হত্যা এমনকী জালিয়ানাওয়ালা বাগের গণহত্যাকারী ব্রিটিশরা কখনো কী ভারতের আজাদি দেয়ার কথা বলেছিল? আজ ভারতীয় সেনার মতো ব্রিটিশ সেনাদের কাছেও সেদিন সমস্ত উপায় এবং পদ্ধতি ছিল যাতে ভারতে তাদের দখলদারি অক্ষুণ্ণ রাখ যায়। কিন্তু শেষমেশ তাদের ক্ষমতা ছেড়ে দিতে হয়েছিল। কারণ মানুষ স্বাধীনতার জন্য দৃঢ়প্রতিজ্ঞ ছিল।’

মীরওয়াইজ ওমর ফারুক কাশ্মির উপত্যকায় প্রচুর পরিমাণে সেনা মোতায়েন নিয়ে প্রশ্ন উত্থাপন করেছেন। তিনি বলেন, সেনাপ্রধানকে তার রাজনৈতিক নেতৃত্বের কাছে একটি মৌলিক প্রশ্ন জিজ্ঞেস করা উচিত কাশ্মিরের সড়ক ও গ্রামে এত বড় সংখ্যায় জওয়ানদের মোতায়েন করার আসলে কী প্রয়োজন? লোকেরা তাদের সোনালী ভবিষ্যতের কথা ছেড়ে দিয়ে অস্ত্র তুলে নেয়া তরুণদের সমর্থন করছে কেন? নিরাপত্তা বাহিনীর সংখ্যা ও তাদের ক্ষমতা সম্পর্কে জানা সত্ত্বেও কেন তারা ওই রাস্তা বেছে নিচ্ছেন?’

তিনি বলেন, কাশ্মির একটি রাজনৈতিক ও মানবিক সমস্যা সেজন্য এর সমাধানও রাজনৈতিকভাবে বের করা উচিত। সামরিক সমাধানে কাশ্মির সমস্যা আরো জটিলই হয়ে যাবে।

মীরওয়াইজ  ওমর ফারুক বলেন, সেনাপ্রধান আসবেন, চলেও যাবেন কিন্তু ভারত ও পাকিস্তানের পক্ষ থেকে জাতিসঙ্ঘে দেয়া প্রতিশ্রুতি থেকে যাবে

মন্তব্য
Loading...